ইউনিক রেসিপিঃ পাহাড়ি ব্যাম্বু চিকেন

পাহাড়ি জনগোষ্ঠী বিশেষ করে পার্বত্য চট্রগ্রামাঞ্চলের অধিবাসীদের মধ্যে অতি প্রচলিত এবং অন্যতম জনপ্রিয় একটি খাবার ” চুমোত হুরো গোরং” বা ” ব্যাম্বু চিকেন “। পাহাড়ি জনগোষ্ঠীর যে কোন সামাজিক অনুষ্ঠান অপূর্ন থেকে যায় জনপ্রিয় এই খাবারটি ছাড়া। মজার এই খাবারটি চাইলে আপনিও বানিয়ে ফেলতে পারেন বাড়িতেই!

রান্নার উপকরণঃ

  • হাঁড় ছাড়া মুরগীর মাংস – ৫০০ গ্রাম Buy Now
  • গরম মশলা – ১ টেবিল চামচ Buy Now
  • লেবুর রস – ১ টা লেবু Buy Now
  • ধনে গুঁড়া – ৩ টেবিল চামচ Buy Now
  • মরিচের গুঁড়া – ১ টেবিল চামচ Buy Now
  • আদা-রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ Buy Now
  • লবন – স্বাদমতো Buy Now
  • হলুদ গুঁড়া – আধা (১/২) টেবিল চামচ Buy Now
  • ধনে পাতা কুচি – পরিমাণ মতো 
  • কাঁচা মরিচ – ১ টা Buy Now
  • অলিভ ওয়েল – ১ টেবিল চামচ Buy Now
  • কাঁচা বাঁশের চোঙা – ১ গিরা, এক পাশ খোলা (২০ সে.মি. প্রায়)
  • কলা পাতা

ব্যাম্বু চিকেন রান্না পদ্ধতিঃ

  • মুরগীর মাংসের টুকরাগুলো একটি পাত্রে নিন। এর উপর হলুদ গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া এবং লবন ছড়িয়ে দিন।
  • ধনে গুঁড়া, গরম মশলা, আদা-রসুন বাটা এবং লেবুর রস ছড়িয়ে দিন। ১ টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল দিন। মাংসের সাথে ভাল করে মাখান। ২০ মিনিট ঢেকে রেখে মেরিনেট করুন।
  • এবার বাঁশের চোঙাতে মেরিনেট করা মাংসের টুকরাগুলো ভরে নিন। বাঁশটা ঝাকি দিন, মাংসের টুকরাগুলো চেপে বসবে, বাঁশের ভেতরে ফাঁকা থাকবে না। মাংসের টুকরা দিয়ে বাঁশটা ভরে গেলে, কলা পাতা মুড়ে বাঁশের মুখটা আটকে দিন। আরেকটা টুকরা কলা পাতা পেঁচিয়ে তার দিয়ে বেঁধে দিন বাঁশের খোলা মুখটা।
  • মাংস ভর্তি বাঁশটি কয়লার আগুনে পুড়ে নিন। লাকড়ি জ্বালিয়ে তাতেও পুড়ে নিতে পারেন।
  • ৩০ মিনিট (বা তার বেশি সময়) ধরে আগুনে পুড়তে হবে। এর মধ্যে ১৫ মিনিট বেশি আগুনে আর ১৫ মিনিট কম আগুনে। বাঁশটা উলটে-পালটে দিবেন যাতে সবদিক ভালভাবে রান্না হয়। বাঁশের বাহিরের দিক যখন পুড়ে কাল হয়ে যাবে বুঝতে হবে বাঁশের ভেতরের মাংস রান্না হয়ে গিয়েছে।
  • আগুন থেকে বাঁশটা তুলে তার উপর পানি ঢেলে দিন, এতে ছাই ছড়াবে না। বাঁশের চোঙার মুখ থেকে কলা পাতা সরিয়ে ভেতরের মুরগীর মাংস বের করে নিন। বাটিতে বা কলাপাতায় ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করুন। ভাল লাগলে কিউব করে কাটা পেঁয়াজের সাথেও পরিবেশন করা যেতে পারে।

পুষ্টিগুণ :

এই খাবারটি মূলত পাহাড়ি খাবারের ঐতিহ্যের অংশ, তবে এটি একই সাথে পুষ্টিকরও। মুরগির মাংস ফসফরাস সমৃদ্ধ হওয়ায় দাঁত ও হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। এছাড়া ফসফরাস কিডনি, লিভার ও স্নায়ুতন্ত্রের নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া বাশ-এ ও রয়েছে পরিমিত প্রোটিন-চর্বি -সুগার-সেলুলোজ ও খনিজ।

বিস্তারিত যেকোনো তথ্যের জন্য ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য অর্ডার করতে

09614-161271

আপনার যেকোনো গ্রোসারি আইটেম অর্ডার করুন সদাইতে। 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 − 5 =